তৃতীয়বারের মতো বিয়ে করছেন শ্রাবন্তী

0
1327
শ্রাবন্তী

সংসার কিছুতেই টেকানো যাচ্ছে না। তবুও নতুন আশায় বুক বাঁধেন, ঘর বাঁধেন। যদি এই ভাঙাগড়ার খেলায় টিকে যায় কোনো একটা ঘর, কোনো একটা পুরুষ। জীবনটা কাটিয়ে দেয়া যাবে সামাজিক সৌন্দর্যে।

এমনই হয়তো ভাবছেন কলকাতার অভিনেত্রী শ্রাবন্তী। প্রথম বিয়েটা করেছিলেন ক্যারিয়ারের দুশ্চিন্তার আগেই। সেটা টিকল না। এরপর বেশ কয়েকজন নায়ক-ব্যবসায়ীর সঙ্গে তার প্রেমের খবর পাওয়া গেছে।

সব গুঞ্জন থামিয়ে ভালোবেসেই শ্রাবন্তী বিয়ে করেছিলেন মুম্বাইয়ের মডেল কৃষণ ব্রজকে। বছর যাবার আগেই চলে গেল সেই দাম্পত্য জীবনের মুগ্ধতা। তার সঙ্গে বিচ্ছেদ চূড়ান্ত হয়েছে সম্প্রতি।

এরপর তিনি জড়িয়েছেন নতুন প্রেমে। এবার শোনা যাচ্ছে সেই প্রেমিককে বিয়ে করতে যাচ্ছেন তিনি। তৃতীয় বিয়ের প্রস্তুতিও নেয়া শুরু করেছেন।

পাত্রের নাম রোশন সিং ওরফে মন্টি। জন্ম সূত্রে পাঞ্জাবি, পেশায় একটি বিমান সংস্থার কেবিন ক্রু। রোশন শ্রাবন্তীর পরিবারের ঘনিষ্ঠ। সেই সূত্রেই শ্রাবন্তীর সঙ্গে আলাপ। মাস চারেকের পরিচয়েই নাকি দু’জনের মধ্যে সম্পর্কটা গভীর হয়েছে।

শ্রাবন্তীর ছেলে ঝিনুকেরও রোশনকে খুব পছন্দ। ঘনিষ্ঠ মহলে শ্রাবন্তী আপাতত শুধু এটুকুই বলেছেন, রোশন ভীষণই ভালো মানুষ।

প্রসঙ্গত, নির্মাতা রাজীবের সঙ্গে বিচ্ছেদের পর ২০১৮ সালের ১০ জুলাই শ্রাবন্তী ও কৃষণের বিয়ে হয়। বিয়ের তিন মাস যেতে না যেতেই তাদের বিচ্ছেদের খবর সামনে আসে। তবে কেন তাদের বিচ্ছেদ হলো তা নিয়ে এখনও শ্রাবন্তী কিংবা কৃষণ মুখ খোলেননি।

সেপারেশনে ছিলেন অনেকদিন ধরেই। এবার সরকারিভাবে ছাড়াছাড়িও হয়ে গেল টালিগঞ্জের জনপ্রিয় অভিনেত্রী শ্রাবন্তী-কৃষ্ণ ভিরাজের। বিয়ের প্রায় দেড় বছর পর আদালতের সিলমোহর পড়ল তাদের বিবাহ বিচ্ছেদের আবেদনে। যে কারনে, আপাতত কাজ এবং ছেলেকে বড় করাই ফোকাস, বলে জানালেন শ্রাবন্তী।

২০১৭ সালের জুলাইয়ে বিয়ে হয় শ্রাবন্তী ও কৃষ্ণ ভিরাজের। সেই সময় পরিবারের লোকজন এবং ইন্ডাস্ট্রির অনেকেই সেই বিয়েতে উপস্থিত ছিলেন। কিন্তু মুম্বাইয়ের মডেল কৃষ্ণ ভিরাজের সঙ্গে বিয়ের কয়েক মাসের মধ্যেই সম্পর্কের টানাপড়েন শুরু হয়। তার জেরে আলাদা থাকতে শুরু করেন দু’জন। যৌথ সম্মতিতে বিবাহ বিচ্ছেদের মামলা করেন শ্রাবন্তী এবং কৃষ্ণ।

গতকাল মঙ্গলবার সরকারিভাবে তাতে সিলমোহর পড়ল আলিপুর আদালতে। শ্রাবন্তীর আইনজীবী অনুনয় বসু বলেন, ২০১৭ সালে পারস্পারিক বোঝাপড়ার ভিত্তিতে বিবাহ বিচ্ছেদের মামলা দায়ের হয়েছিল। মঙ্গলবার আলিপুর আদালতের জেলা বিচারক রবীন্দ্রনাথ সামন্ত তাতে সিলমোহর দিয়েছেন।

শ্রাবন্তী আগেই জানিয়ে ছিলেন, বিচ্ছেদের সিদ্ধান্ত কারও একার নয়, দু’জনের যৌথ সিদ্ধান্ত। আপাতত ছেলে ঝিনুককে বড় করা এবং নিজের কাজ, এই দু’টিতেই মনোযোগ দিতে চান। কারও বিরুদ্ধে তার কোনও অভিযোগ নেই।

২০০৩ সালে শ্রাবন্তীর প্রথম বিয়ে হয় পরিচালক রাজীব বিশ্বাসের সঙ্গে। তাদের সন্তানই ঝিনুক। সেই বিয়েও ভেঙে যায়। দীর্ঘদিন বিচ্ছেদের পর বিয়ে হয় কৃষ্ণর সঙ্গে। শ্রাবন্তীর ছেলে ঝিনুকের সঙ্গেও কৃষ্ণ ভিরাজের সম্পর্ক ভাল ছিল। এক সময় ইন্ডাস্ট্রিতে শোনা গিয়েছিল, শ্রাবন্তী এবং কৃষ্ণ একসঙ্গে একটি ছবিতে অভিনয় করবেন। কিন্তু শেষ পর্যন্ত তা হয়নি।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here